ক্ষোভ থেকে ভারতে যাইনি: অঞ্জু ঘোষ

প্রকাশ: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮     আপডেট: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

অনুষ্ঠানে অঞ্জু ঘোষ- সংগ্রহ

কোনও ক্ষোভ থেকে নয় বরং দুইদিনের জন্য ভারতে গিয়ে আর বাংলাদেশে ফিরে আসতে পারেননি বলে জানিয়েছেন আশি ও নব্বইয়ের দশকের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা অঞ্জু ঘোষ।

রোববার বিকেলে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (বিএফডিসি) বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির কার্যালয়ে এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি একথা জানান।

অঞ্জু ঘোষ বলেন, ‘কারও ওপর ক্ষোভ থেকে দেশ ছাড়িনি। দুই দিনের জন্য গিয়েছিলাম। ওখানে গিয়ে এমন ফেঁসে গেলাম, আর আসতে পারিনি।’

১৯৮৯ সালে মুক্তি পাওয়া ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করেন ইলিয়াস কাঞ্চন ও অঞ্জু ঘোষ। তোজাম্মেল হক বকুল পরিচালিত ছবিটির ব্যবসার রেকর্ড এখনও পর্যন্ত ভাঙতে পারেনি আর কোনও চলচ্চিত্র। হঠাতই ভারতে যাওয়ার পর এখন স্থায়ীভাবে সেখানেই বাস করছেন এই নায়িকা।

রোববার চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির আজীবন সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করে সম্মানিত করা হয় নায়িকাকে। এ সময় অঞ্জু ঘোষের পাশে উপস্থিত ছিলেন নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।

অনুষ্ঠানে অঞ্জু ঘোষকে প্রশ্ন করা হয়, কোনও অভিমানে দেশ ছেড়েছিলেন কিনা? তিনি বলেন, আমি আবারও বলছি, কোনও ক্ষোভ থেকে আমি সেখানে যাইনি। গিয়েছিলাম বেড়াতে। তারপর ওখানে ছবিতে কাজ নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ি, আর ফেরা হয়নি।

অঞ্জু ঘোষ বলেন, আমি যখন এই ইন্ডাস্ট্রিতে এসেছিলাম, তখন ক্লাস নাইনে পড়তাম। এই এফডিসি তখন কী জমজমাট ছিল! তখন পুরো এফডিসি জুড়ে কী ব্যস্ততা ছিল! এটাই ছিল আমাদের‍ ঘরবাড়ি। এটাই ছিল সংসার। কিন্তু এবার এসে হতাশ হয়েছি। সব পাল্টে গেছে।

এক সময়ের জনপ্রিয় এ নায়িকা বলেন, আপনারা যে আমাকে এখনো মনে রেখেছেন, আমি সত্যিই দারুণ খুশি হয়েছি। সবার ভালোবাসা দেখে বারবার আমার চোখ ভিজে যাচ্ছে।

অঞ্জু ঘোষের হাতে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির আজীবন সদস্যপদের চিঠি তুলে দেন সংগঠনটির সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।

আরও পড়ুন

দলগুলোকেই অঙ্গীকার করতে হবে

দলগুলোকেই অঙ্গীকার করতে হবে

নাগরিক সমাজের পক্ষ থেকে সব সময়ই অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের ...

এভাবে চললে নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ হবে

এভাবে চললে নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ হবে

সবাই চাচ্ছে সহিংসতা বন্ধ হোক। এভাবে সহিংসতা হলে পুরো নির্বাচনী ...

ধানের শীষে একাকার ঐক্যফ্রন্ট-জামায়াত

ধানের শীষে একাকার ঐক্যফ্রন্ট-জামায়াত

শরিক হিসেবে জামায়াতে ইসলামী না থাকলেও একসঙ্গে কাঁধ মিলিয়েই ধানের ...

প্রার্থীর জয়-পরাজয়ে বড় ফ্যাক্টর অন্য নেতারা

প্রার্থীর জয়-পরাজয়ে বড় ফ্যাক্টর অন্য নেতারা

ঢাকার বুড়িগঙ্গায় শহীদ বুদ্ধিজীবী সেতুর (বছিলা ব্রিজ) ঢাল থেকে গতকাল ...

এখনই লুনার বিকল্প নিয়ে ভাবছে না বিএনপি জোট

এখনই লুনার বিকল্প নিয়ে ভাবছে না বিএনপি জোট

সিলেট-২ আসনে আইনি জটিলতায় তাহসিনা রুশদীর লুনার প্রার্থিতা বাতিল হওয়ার ...

ক্যান্সার শনাক্ত হবে ১০ মিনিটেই

ক্যান্সার শনাক্ত হবে ১০ মিনিটেই

সহজ এবং সাশ্রয়ী পরীক্ষার মাধ্যমে মাত্র ১০ মিনিটে সব ধরনের ...

কীর্তিমানের মৃত্যু নেই

কীর্তিমানের মৃত্যু নেই

পরিচালনা ও লেখালেখি অনেকেই ভালো করেন-কিন্তু গণমানুষের প্রাণের স্পন্দনের সঙ্গে ...

আত্মসমর্পণের কূটনীতি

আত্মসমর্পণের কূটনীতি

৩ ডিসেম্বর ১৯৭১। স্বাধীনতার জন্য বাঙালিদের লড়াই যখন সর্বাত্মক যুদ্ধের ...