সিলেট-সুনামগঞ্জে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছে জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ (জেসিপিএসসি)।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিলেট এরিয়ার এরিয়া কমান্ডার, ১৭ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি ও জেসিপিএসসির প্রধান পৃষ্ঠপোষক মেজর জেনারেল হামিদুল হকের নির্দেশনায় এবং প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও কমান্ডার ১১ পদাতিক ব্রিগেডের ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ শওকত ওসমানের তত্ত্বাবধানে প্রতিষ্ঠান প্রধান লে. কর্নেল মো: কুদ্দুসুর রহমান ছাতক-সুনামগঞ্জ ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ কাজে নিয়োজিত বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইউনিট ৪২ বীর (বাংলাদেশ ইনফেন্ট্রী রেজিমেন্ট) এবং ৬১ ইস্ট বেঙ্গল (রিয়ার) রেজিমেন্টের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার হাতে ত্রাণ সামগ্রী হস্তান্তর করেন।

সোমবার সকাল ৮টার দিকে ছাতক-সুনামগঞ্জ ও সিলেটের বানভাসি মানুষের উদ্দেশ্যে ত্রাণ সামগ্রী হস্তান্তর করা হয়। সুনামগঞ্জ ও ছাতকের দুর্গম এলাকার বন্যাদুর্গত মানুষের মধ্যে বিতরণের জন্য মোট ৫০০ প্যাকেট খাদ্যসামগ্রী প্রদান করা হয়। প্যাকেট প্রতি মোট ১০ প্রকারের শুকনো খাবার ও রসদ সামগ্রী দেওয়া হয়। 

ত্রাণ সামগ্রী বিতরণকালে অধ্যক্ষ বলেন, 'এই বিপর্যয় শুধু ক্ষতিগ্রস্ত বানভাসির নয়।  এটি আমাদের জাতীয় বিপর্যয়। আমাদের সবাইকে ক্ষতিগ্রস্তদের প্রাণ রক্ষার্থে সামর্থ্য অনুযায়ী সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে হবে।'

তিনি আরও বলেন, 'যেকোনো মানবিক সংকট ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে জেসিপিএসসি পরিবার অতীতে যেভাবে দায়িত্ব পালন করে এসেছে, এবারও একইভাবে আমরা বন্যাকবলিত মানুষের পাশে থেকে দায়িত্ব পালনে সচেষ্ট।' 

খাদ্যসামগ্রী প্রদান অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানের উপাধ্যক্ষসহ ত্রাণ বিতরণ কমিটির জন্য নির্বাচিত শিক্ষকমণ্ডলী ও স্টাফগণ উপস্থিত ছিলেন। জেসিপিএসসির উপাধ্যক্ষ মো. আবদুল হান্নান সার্বিক দেখাশোনা করেন।