চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে একটি মন্দিরের ভেতর থেকে তুষি মং মার্মা (১০) নামে এক শিশুকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে ফটিকছড়ির আবদুল্লাহপুর এলাকার দক্ষিণ বড়ুয়া পাড়ার শ্রামণ মন্দিরের ভিতরে এ ঘটনা ঘটে।

তুষির মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। মারা যাওয়া তুষি মং মার্মা রাঙামাটির কাউখালী থানার উপ নিজ পাড়ার পাইচি মং মার্মার ছেলে।

নগরীর পাঁচলাইশ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সাদেকুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ফটিকছড়িতে মন্দিরের ভিতরে অজ্ঞাত কারণে সিলিং ফ্যানের সাথে রশি দিয়ে ঝুলে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মাহত্যার চেষ্টা করে তুষি মং। পরে ওই শিশুক গুরুতর অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেলের কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত শিশুর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে মন্দিরের ভিতর থেকে শিশুর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধারের ঘটনাটিকে পুলিশ প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যা হিসেবে সন্দেহ করলেও ১০ বছরের শিশুর এমন মৃত্যু নিয়ে রহস্য দেখা দিয়েছে। এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা তা তদন্তের দাবি জানিয়েছে মারা যাওয়া শিশুর স্বজনরা।

এ বিষয়ে ফটিকছড়ি থানার ওসি কাজী মাসুদ ইবনে আনোয়ার বলেন, শিশুর বাবার কোনো অভিযোগ নেই। তিনি কোনো অভিযোগ দিতে রাজি হয়নি। তারপরও আমরা অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছি। পরবর্তীতে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট অনুযায়ী আইনানুগ পদক্ষেপ নেওয়া হবে।