কাঙ্ক্ষিত বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের স্বার্থে ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহার করলেও তৃতীয় পক্ষের কাছে গোপনীয় ডাটা হস্তান্তর কিংবা বিক্রির অভিযোগ অস্বীকার করেছে ফেসবুক। বুধবার ঢাকার একটি হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এ বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন মেটার এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের প্রাইভেসি ও পাবলিক পলিসি ম্যানেজার আরিয়ান ইমেনেজ।

অনুষ্ঠানে তিনি 'ব্যক্তিগত গোপনীয়তা এবং কেন এটি গুরুত্বপূর্ণ' শীর্ষক একটি প্রেজেন্টেশন তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানে মেটা এমার্জিং এশিয়ার পলিসি কমিউনিকেশন লিড ফাহাদ কাদির ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে সরাসরি উপস্থিত ছিলেন মেটার বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার যোগাযোগ ব্যবস্থাপক শেহজিন চৌধুরী। ফেসবুক ছাড়াও মেটার মালিকানাধীন হোয়াটসঅ্যাপ, ইনস্টাগ্রাম, মেসেঞ্জার রয়েছে।

আরিয়ান ইমেনেজ বলেন, ফেসবুকের মূল প্রতিষ্ঠান মেটা ব্যবহারকারীর প্রোফাইল এবং ফেসবুক ও ইন্টারনেটে তার কার্যক্রমের ভিত্তিতে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে। মেটা ব্যবহারকারীর কার্যক্রম বিজ্ঞাপন দেখানোর স্বার্থে পর্যবেক্ষণ করলেও ব্যবহারকারীর তথ্য তৃতীয় পক্ষের কাছে কখনোই বিক্রি করে না। ইন্টারনেটে কোনো ব্যবহারকারী কোনো পণ্য বা সেবা অনুসন্ধান করলে ফেসবুকে ওই ব্যক্তির টাইমলাইনে ওই ধরনের বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হতে থাকে।

তিনি আরও বলেন, মেটা প্ল্যাটফর্মে ব্যবহারকারী তাঁর গোপনীয়তা কীভাবে সংরক্ষণ করবেন, সেটি তিনি নিজেই নির্বাচন করতে পারেন। এজন্য প্রয়োজন মতো গোপনীয়তা নির্বাচন করতে পারেন। আরিয়ান ইমেনেজ গোপনীয়তা নীতিমালাকে আরও কার্যকর করতে প্ল্যাটফর্মটিতে 'প্রাইভেসি সেন্টার' নামে নতুন ফিচার যুক্ত করা হয়েছে উল্লেখ করে বলেন, ব্যবহারকারীদের সুরক্ষায় প্ল্যাটফর্মটিতে বিভিন্ন টুলস রয়েছে। এসব টুলস নিয়মিত হালনাগাদ হয়ে থাকে। নতুন এ ফিচারের মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা আরও ভালোভাবে আমাদের গোপনীয়তা নীতিমালা বুঝতে পারবেন।