মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের শিমুলিয়া ফেরিঘাট এলাকার পদ্মা নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় শেখ আশরাফুল আলম মিঠু নামে এক ব্যক্তির গলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রোববার দুপুর ১২টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা মরদেহ উদ্ধার করেন। পরে ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে মরদেহ পাঠানো হয়। 

মাওয়া নদী বন্দরের পরিবহন পরিদর্শক মো. শাহাদাত হোসেন জানান, ধারণা করা হচ্ছে কয়েকদিন আগে পদ্মা পারাপার হওয়ার সময় লঞ্চ বা স্পিডবোটে উঠার সময় ওই ব্যক্তি পদ্মা নদীতে পড়ে নিখোঁজ হন। রোববার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে শিমুলিয়া ঘাটের লঞ্চ টার্মিনালের বিপরীত দিকে পদ্মায় মরদেহ ভেসে ওঠে। তার পকেটে থাকা জাতীয় পরিচয়পত্র দেখে পরিচয় শনাক্ত করা হয়। তার নাম মো. আশরাফুল আলম মিঠু (৬৩), পিতা-ছারোয়ার জান, মাতা- শেরিনা বেগম,  হোল্ডিং নম্বর-৪/৪ গ্রাম-সবুজবাগ আবাসিক এলাকা, সোনাডাঙ্গা, খুলনা-৯১০০।

মাওয়া নদী বন্দর কার্যালয়ের ওবায়দুল করিম খান জানান, মৃত ব্যক্তির শরীরে পচন ধরেছে। গলিত মরদেহ উদ্ধার করায় ধারণা করা হচ্ছে, বেশ কয়েকদিন আগে লঞ্চ বা স্পিডবোটে ওঠার সময় তিনি নদীতে পড়ে যান।