কামরাঙ্গীরচরে কিশোরদের ২ গ্রুপের বিবাদে খুন হয় সজীব

প্রকাশ: ১৬ জুলাই ২০২০   

সমকাল প্রতিবেদক

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরের রসুলপুর এলাকায় কিশোরদের দু'টি গ্রুপের মধ্যে সিনিয়র-জুনিয়র নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়। এর জের ধরে বুধবার রাতে ইমন নামের একজনকে মারধর করে অপরপক্ষ। এ ঘটনার শোধ নিতে গিয়ে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে নিহত হয় ইমনের বন্ধু সজীব। 

ঘটনাটির প্রাথমিক তদন্তের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার এসব তথ্য জানিয়েছে পুলিশ। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে তারা গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

কামরাঙ্গীরচর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোস্তফা আনোয়ার সমকালকে বলেন, 'স্থানীয় কিশোর-তরুণদের মধ্যে বাকবিতণ্ডর এক পর্যায়ে ছুরিকাঘাতের ঘটনাটি ঘটে। হত্যায় প্রধান অভিযুক্ত ইসরাফিলের অবস্থান জানতে পেরেছে পুলিশ। শিগগিরই তাকে গ্রেপ্তার করা হবে।'

১৭ বছরের কিশোর সজীব নিউমার্কেট এলাকার ফুটপাতে প্রসাধনসামগ্রী বিক্রি করত। সে পরিবারের সঙ্গে রসুলপুর এলাকার আট নম্বর গলিতে থাকত। এ ঘটনায় ১১ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেছেন সজীবের বাবা রুহুল আমিন।

তদন্ত সূত্র জানায়, বিল্লাল নামের রসুলপুরের এক কিশোর মঙ্গলবার রাতে সজীবের বন্ধু ইমনকে মারধর করেন। জবাবে ইমন ও তার সঙ্গীরাও বিল্লালকে পেটায়। এরপর বুধবার আবারও ইমনকে মারধর করেন 'বড় ভাই' দাবি করা বিল্লাল ও তার সঙ্গীরা। কিছু সময় পর ইমন, সজীবসহ অন্যদের নিয়ে বিল্লালকে মারতে যায়। এ সময় হাতাহাতির এক পর্যায়ে সজীবকে ছুরিকাঘাত করে ইসরাফিল নামের এক কিশোর। উদ্ধার করে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। 

স্থানীয়রা জানায়, দু'পক্ষের সবারই বয়স ১৫ থেকে ১৯ বছরের মধ্যে। তারা কেউই পড়ালেখায় নিয়মিত নয়। সবাই উপার্জনমূলক বিভিন্ন কাজে যুক্ত।