জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পেছনে কারা কলকাঠি নেড়েছে, তা উদঘাটন হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সুপ্রিমকোর্ট অডিটরিয়ামে হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি এ এন এম বসির উল্লাহর 'বিচারক জীবনের কথা' লেখা বইয়ের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে তিনি এই মন্তব্য করেন।

প্রধান বিচারপতি বলেন, বাংলাদেশের কথা বলতে গেলে, বাংলা ভাষার কথা বলতে গেলে, বাংলার মানুষের কথা বলতে গেলে বঙ্গবন্ধুর কথা বলতে হবে। আমরা বঙ্গবন্ধুকে হারিয়েছি ১৯৭৫ সালে। পঁচাত্তরের ঘটনায় কী মনে হয়- বাঙালিরা আসলে মানুষ হয়েছে? কারণ, বঙ্গবন্ধুকে যারা গুলি করেছেন তারা বাঙালি। বঙ্গবন্ধুকে সামনে থেকে যারা গুলি করেছেন, তারা স্বীকার করেছেন। তারা আত্মস্বীকৃত খুনি। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, শুধু কি তারাই? নাকি অনেক বড় চক্র এর পেছনে কাজ করেছে, যেটি এখনও উদঘাটন হয়নি। হত্যার পেছনে কারা কলকাঠি নেড়েছেন তা উদঘাটন হওয়া উচিত।

বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন আপিল বিভাগের বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান, বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি বোরহান উদ্দিন। অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক, গবেষক অধ্যাপক ড. সৈয়দ আনোয়ার হোসেন।

বিচারপতি ওবায়দুল হাসান বলেন, একটি কমিশন হওয়া উচিত। কারা এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত, দেশি-বিদেশি কারা হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল। একটি কমিশনের মাধ্যমে এটি উদঘাটিত না হলে আগামী প্রজন্ম জানতে পারবে না কী ঘটনা সেদিন ঘটেছিল। আমার মনে হয়, যে প্রস্তাব রেখে গেলাম, সরকার এটি বিবেচনা করবে।