শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদকে সম্মান নিয়ে পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এবং তেল-গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব আনু মুহাম্মদ।

তিনি বলেন, 'আপনি (ফরিদ উদ্দিন) পদত্যাগ করলে আপনার সম্মান থাকবে, সম্মান নিয়ে পদত্যাগ করুন। আপনি যত জোর করে ক্ষমতা ধরে রাখবেন, চেয়ার আঁকড়ে থাকবেন তত আপনার সম্মানহানি হবে। আমরা আশা করি, আপনার মধ্যে সে সম্মানবোধ জাগ্রত হবে।'

শুক্রবার বিকেলে প্রগতিশীল ছাত্র জোটের আয়োজনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সংহতি জানিয়ে আয়োজিত এক সমাবেশে তিনি এই আহ্বান জানান।

আনু মুহাম্মদ বলেন, 'অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিনের এই অবস্থা দেখে অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরাও বার্তা নেবেন। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের পৃষ্ঠপোষকতায় দুর্নীতিবাজদের রক্ষা করার যে নীতি চলছে, সরকারকে এই নীতি থেকে সরে আসার দাবি জানাচ্ছি।'

অর্থনীতি বিভাগের এই অধ্যাপক বলেন, উপাচার্য নিয়োগে কোনো মেধা বা যোগ্যতার যাচাই করা হয় না, বরং যে ব্যক্তি সরকারের উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন করতে পারবে তাকেই নিয়োগ দেওয়া হয়। শাবিপ্রবিতে চলমান পরিস্থিতিতে উপাচার্যের শিক্ষার্থীদের প্রতি আচরণের মাধ্যমে সেই বিষয়টিই পরিলক্ষিত হয়।

বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি ইকবাল কবিরের সভাপতিত্বে এবং ছাত্রফ্রন্টের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক রাফিকুজ্জামান ফরিদের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন- মোশাহিদা সুলতানা রিতু, ফারুক ওয়াসিফ, আইনুন্নাহার সিদ্দিকা জুঁথি, অধ্যাপক ডা. হারুনুর রশিদ, জাহিদ সুজন, সুনয়ন চাকমা, নাসির উদ্দীন প্রিন্স, অনিক রায়, সায়েদুল হক নিশান প্রমুখ।

শাবিপ্রবি উপাচার্যের পদত্যাগের দাবি সাবেক শিক্ষার্থীদের :এদিকে উপচার্য পদত্যাগের অভিন্ন দাবি জানিয়েছেন শাবিপ্রবির সাবেক শিক্ষার্থীরা। শুক্রবার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে এই দাবি জানান তারা। সমাবেশে সাবেক শিক্ষার্থীরা উপাচার্য ফরিদ উদ্দিনের পদত্যাগের দাবিতে নানা ধরনের স্লোগান দেন। সমাবেশ শেষে তারা বিক্ষোভ মিছিলও বের করেন।