আবরার হত্যাকাণ্ডের পর বুয়েটে প্রথম পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯   

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

অবশেষে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থীরা। আবরার হত্যাকাণ্ডের পর এই প্রথম বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হলো। শনিবার বুয়েটের শেরে বাংলা হলে শিক্ষার্থীরা টার্ম ফাইনাল পরীক্ষায় অংশ নেন।

গত ৬ অক্টোবর বুয়েটের ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করে শিক্ষার্থীরা হত্যাকারীদের বিচারসহ ১০ দফা দাবি জানান। পরবর্তীতে র‌্যাগের ঘটনায় জড়িতদের বহিষ্কারসহ তিনদফা দাবি জানান তারা। এসব দাবি পূরণ হওয়া পর্যন্ত তারা ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন কর্মসূচি অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন। পরে দাবিগুলো পর্যায়ক্রমে পূরণের মধ্যে শনিবার তারা পরীক্ষায় অংশ নেন।

এ বিষয়ে বুয়েট শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখপাত্র অন্তরা তিথি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ স্বাভাবিক হওয়ায় অনেক ভালো লাগছে। প্রশাসন আমাদের সবগুলো দাবি পুরণের আশ্বাস দিয়েছে। তবে এখনও আমাদের দু’টি দাবি পুরণ হয়নি। এর মধ্যে একটি ছিলো, আবরারের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়া। অন্যটি- আবরার হত্যা মামলার সকল খরচ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে বহন করা। আশা করি দ্রুততম সময়ের মধ্যে সেগুলো পূরণে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিদপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক মিজানুর রহমান বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের সকল দাবি মেনে নিয়েছি। তাদের দাবিগুলো পূরণ হওয়ার কারণে তারা পরীক্ষা দিচ্ছে। ক্লাস ও পরীক্ষা থেকে বিরত থাকায় তাদেরই বেশি ক্ষতি হচ্ছিল। এখন শিক্ষার্থীরা স্বাভাবিক কার্যক্রমে ফিরে আসায় আমরা আনন্দিত, তাদের সাধুবাদ জানাই।