'মুজিববর্ষ' হবে রাজনৈতিক শুদ্ধাচারের সোপান: নৌপ্রতিমন্ত্রী

প্রকাশ: ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯   

 সমকাল প্রতিবেদক

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, আগামী বছর সারাদেশে জাঁকজমকপূর্ণভাবে শুরু হবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান। বছরব্যাপী বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী পালনের মধ্য দিয়ে রাজনীতিতে ইতিবাচক পরিবর্তন আনাই এর মূল লক্ষ্য। তাই মুজিববর্ষ হবে রাজনৈতিক শুদ্ধাচারের সোপান। এর মধ্য দিয়ে রাজনীতি গুণগতভাবে নতুন ধারায় এগুবে বলেই সবার প্রত্যাশা।

বুধবার সচিবালয়ে প্রতিমন্ত্রীর দপ্তরে শিপিং এন্ড কমিউনিকেশন রিপোর্টার্স ফোরামের (এসসিআরএফ) কার্যনির্বাহী কমিটির নবনির্বাচিত নেতাদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতকালে নৌপ্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ সময় প্রতিমন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান এসসিআরএফ নেতারা। জবাবে সংগঠনের নবনির্বাচিত নেতাদের অভিনন্দন জানান খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন এসসিআরএফ'র সভাপতি আশীষ কুমার দে, সহ-সভাপতি অমরেশ রায়, সাধারণ সম্পাদক মহসীনুল করিম লেবু, সাবেক সভাপতি আনিসুর রহমান খান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সবুজ, অর্থ সম্পাদক হাবিবুল্লাহ মিজান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পঞ্চায়েত হাবিব প্রমুখ।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, রাজনীতিতে এতদিন যে ধারা চলে আসছিল, আওয়ামী লীগ তার গুণগত পরিবর্তন করতে চায়। আমরা দেখতে চাই, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী মহলসহ সব রাজনৈতিক দল রাজনৈতিক ও অন্যান্য আদর্শগত মতভেদের উর্ধ্বে উঠে মুজিববর্ষে বঙ্গবন্ধুকে যথাযথ সম্মান দেখাবে। তার জন্মশতবার্ষিকী পালন করবে।

নদ-নদী রক্ষাসহ নৌপরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়নে সরকারের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করে তিনি বলেন, বর্তমান সরকার কেবল প্রতিশ্রুতি দিয়েই শেষ করেনি; নৌখাতের উন্নয়নে বদ্ধপরিকর। এজন্য যা যা করণীয় তাই করছে এবং করবে। নৌপরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়নে এসসিআরএফের সদস্যরাসহ সংশ্নিষ্ট সব মহলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।