বুয়েটের ভিসি থাকা না থাকা উচ্চপর্যায়ের বিষয়: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশ: ১০ অক্টোবর ২০১৯     আপডেট: ১৩ নভেম্বর ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য থাকবেন কি থাকবেন না, তা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিষয় নয়। এটি সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সিদ্ধান্তের বিষয়। 

বৃহস্পতিবার রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে 'গ্লোবাল এডুকেশন মনিটরিং রিপোর্ট-২০১৯' প্রতিবেদন প্রকাশ অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।

সাংবাদিকরা শিক্ষামন্ত্রীর কাছে জানতে চান, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অ্যালামনাইসহ সব মহলের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে বুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম পদত্যাগ করবেন কিনা বা তাকে অপসারণ করা হবে কিনা। শিক্ষামন্ত্রী তখন বলেন, বুয়েটের চলমান অস্থিরতা ও দাবিদাওয়া বুয়েট প্রশাসনকেই নিরসন করতে হবে। সরকারের পক্ষ থেকে কোনো কিছু চাপিয়ে দেওয়া হবে না। তিনি বলেন, ভিসির মেয়াদ আর মাত্র কয়েক মাস। শিক্ষার্থীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে তাকে সরানো হবে কি হবে না সেটি উচ্চপর্যায়ের সিদ্ধান্তের ব্যাপার। তবে আবরার হত্যার ঘটনায় আমি লজ্জিত। দেশের মানুষ মর্মাহত।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটিতে শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শিক্ষকদের আন্দোলনে ক্ষোভ প্রকাশ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বুয়েটে এমন ঘটনা আগেও ঘটেছে। তখন শিক্ষক ও অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন কোথায় ছিলেন? তখন তারা কেন আন্দোলনে নামেননি? কেন এখন সবাই মিলে আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন? এটি রহস্যজনক।

এক প্রশ্নের জবাবে ডা. দীপু মনি বলেন, বুয়েটে ছাত্রলীগ ছাড়াও অন্যান্য শক্তিশালী ছাত্রসংগঠন রয়েছে। এর আগে তাদের কখনো আন্দোলনে নামতে দেখা যায়নি। বুয়েটে ছাত্রসংগঠন থাকবে কি থাকবে না, তাও বুয়েট প্রশাসনের সিদ্ধান্তের ব্যাপার।

এ সময় শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. সোহরাব হোসাইন উপস্থিত ছিলেন।