শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শেকৃবি) উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ। তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয়ের এগ্রিকালচারাল বোটানি বিভাগের অধ্যাপক।
 
রোববার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, রাষ্ট্রপতি ও শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর মো. আবদুল হামিদ আগামী চার বছরের জন্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদকে এ পদে নিয়োগ দিয়েছেন। যোগদানের দিন থেকে তার এ নিয়োগ কার্যকর হবে।
 
আদেশে আরও বলা হয়, তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে সার্বক্ষণিক বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অবস্থান করবেন। ভিসি হিসেবে তিনি তার বর্তমান পদসংশ্লিষ্ট বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুবিধাদি প্রাপ্য হবেন। রাষ্ট্রপতি প্রয়োজন মনে করলে নির্ধারিত সময়কালের আগে তার নিয়োগের আদেশ বাতিল করতে পারবেন।
 
এছাড়া রোববার আলাদা আদেশে শেকৃবির উপ-উপাচার্য হিসাবে কৃষি সম্প্রসারণ ও ইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. সেকেন্দার আলী এবং পোল্টি বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল হক বেগমকে ট্রেজারার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মো. আবদুল হামিদ বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০০১ এর ১০(১) ধারা মোতাবেক এ নিয়োগ দেন।
 
তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় নবনিযুক্ত উপাচার্য ড .কামাল উদ্দিন সমকালকে বলেন, 'বিশ্ববিদ্যালয় মূলত জ্ঞান আহরণ, জ্ঞান বিতরণ, নতুন জ্ঞানের অনুসন্ধান ও জ্ঞান সৃষ্টির তীর্থস্থান।' এজন্য শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে সংশ্লিষ্ট সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।
 
অধ্যাপক কামাল উদ্দিন আহাম্মদ ১৯৫৭ সনের ১ এপ্রিল কুমিল্লা জেলার হোমনা উপজেলার বিজয়নগর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। বাংলাদেশ কৃষি ইনস্টিটিউট বর্তমান শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে তিনি ১৯৭৯ সালে বিএসসি এজি ও ১৯৮২ সালে এমএসসি, যুক্তরাজ্য থেকে ১৯৮৭ সালে এমফিল এবং ২০০৭ সালে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ১৯৮১ সনে তৎকালীন বাংলাদেশ কৃষি ইনস্টিটিউটে (শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়) এগ্রিকালচারাল বোটানি বিভাগে প্রভাষক হিসেবে তার কর্মজীবন শুরু করেন।
 
অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ ভুট্টা, গম ও ধানের ওপর বিশ্ব খাদ্য ও কৃষি সংস্থা, ইউরোপীয়ান কমিশন, ইউএস-এইড, বাংলাদেশ সরকার, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন ও শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সাতটি বিভিন্ন গবেষণা প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছেন। তিনি শিক্ষা, গবেষণা ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় অবদানের জন্য বাংলাদেশ শিক্ষা পর্যবেক্ষক সোসাইটি কর্তৃক অমর একুশে ২০১২ পদকপ্রাপ্ত হয়েছেন।