সাক্ষাৎকার কাজী আনিস আহমেদ

এবারের আসর যথেষ্ট পরিণত

১৬ নভেম্বর ২০১৭

সমকাল প্রতিবেদক

কাজী আনিস আহমেদ, সাহিত্যিক এবং ঢাকা লিট ফেস্ট আয়োজনের অন্যতম পরিচালক। উৎসবের নানা দিক নিয়ে সমকালের সঙ্গে তিনি কথা বলেছেন। এবার সপ্তমবারের মতো আয়োজিত সাহিত্যের এই আসরটি তার মতে অনেক পরিণত ও পরিপকস্ফ রূপ পেয়েছে।

তিনি বলেন, গত ছয় বছরের আয়োজনের অভিজ্ঞতা ও প্রচেষ্টায় এবার উৎসবের পরিধি অনেক বেড়েছে। আরও বেশি দেশের সাহিত্যিকদের অংশগ্রহণে আয়োজনটি বৈচিত্র্যময় হয়ে উঠেছে। মোট ২৪টি দেশের ২০০ জনের বেশি শিল্পী-সাহিত্যিকের সমাগম ঘটেছে এবারের উৎসবে। দর্শক এবং সাহিত্যপ্রেমী মানুষের বিপুল সাড়া এরই মধ্যে আয়োজকদের মুগ্ধ করেছে। পশ্চিমা বিশ্ব সব সময় আমাদের দুর্ঘটনা, দারিদ্র্য নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করে এসেছে। সম্প্রতি যুক্ত হয়েছে জঙ্গিবাদ। কিন্তু আমরা চাই, আমাদের সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক পরিচিতি বিশ্বের সামনে স্বমহিমায় উপস্থাপিত হোক। নতুন বাংলাদেশকে চিনুক বিশ্ব। ঢাকা লিট ফেস্টের সফলতা নিয়ে অনেক আশাবাদী আমি।

তিনি বলেন, এটি একটি আন্তর্জাতিক সাহিত্য উৎসব। এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে এ সময়ের শ্রেষ্ঠ লেখকদের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ হচ্ছে এবং উত্তরোত্তর বড় পরিসরে এটি করা সম্ভব হচ্ছে। উৎসবটি এখন দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বড় সাহিত্য আয়োজন হিসেবে সমাদৃত।

বাংলাদেশের শিল্প-সাহিত্যের পরিপ্রেক্ষিতে এ আয়োজনকে কীভাবে দেখছেন- এমন প্রশ্নের জবাবে কাজী আনিস আহমেদ বলেন, এখানে একটি বিষয় হচ্ছে, বিভিন্ন দেশের লেখক-চিন্তাবিদরা আসছেন। তারা কী ভাবছেন, আমরা জানতে পারছি। অন্য মূল বিষয়টি হচ্ছে, বাংলা সাহিত্য-সংস্কৃতি ও কৃষ্টি অন্যদের কাছে তুলে ধরা। আমাদের বিখ্যাত অনেক লেখকের কালজয়ী রচনাগুলো বাংলার বাইরে প্রচারিত হয়নি। সোমালিয়া বা আলবেনিয়ার মতো অনেক ছোট বা সংকটময় দেশের লেখকরাও আন্তর্জাতিক মর্যাদা পান। তাহলে বাংলা লেখা উপেক্ষিত থেকে গেল কেন? সাবলীল সহজ অনুবাদ বেশি হওয়া দরকার, যেটা আবার বিদেশি সমঝদারদের হাতেও পৌঁছে দেওয়া দরকার। লিট ফেস্টের মাধ্যমে সেসব কাজ আমরা শুরু করতে পেরেছি বলেই আমার বিশ্বাস।

তিনি জানান, গত বছর প্রথমবারের মতো সাহিত্যে নোবেল বিজয়ী লেখক ভি এস নাইপল বাংলাদেশে এসেছেন। পুলিৎজারজয়ী কবি ভিজেই শেষাদ্রি ও ম্যানবুকারজয়ী অনুবাদক ডেবোরা স্মিথ এসেছেন। এবার এসেছেন আরেক স্বনামধন্য বিশ্ববিখ্যাত কবি আদোনিস। এবারের অংশগ্রহণকারী বিদেশি সাহিত্যিকদের তালিকা অন্যবারের তুলনায় আরও বৈচিত্র্যময়। এভাবে একসময় দেশ-বিদেশের সাহিত্যিকদের এই আদান-প্রদান আরও নিবিড় ও সাবলীল হবে বলে মনে করেন তিনি।





© সমকাল 2005 - 2017

সম্পাদক : গোলাম সারওয়ার । প্রকাশক : এ কে আজাদ

১৩৬ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৮৮৭০১৭৯-৮৫, ৮৮৭০১৯৫, ফ্যাক্স : ৮৮৭০১৯১, ৮৮৭৭০১৯৬, বিজ্ঞাপন : ৮৮৭০১৯০ । ইমেইল: info@samakal.com