রাজনীতি

ঈর্ষান্বিত হয়ে নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করছে সরকার: ফখরুল

প্রকাশ: ১৪ নভেম্বর ২০১৭     আপডেট: ১৫ নভেম্বর ২০১৭      

 সমকাল প্রতিবেদক

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর -ফাইল ছবি

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জনপ্রিয়তা এখন আকাশচুম্বী। ব্যাপক জনসমর্থনে ঈর্ষান্বিত হয়ে সরকার আরও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে। মন্ত্রী-এমপিদের বেপরোয়া দাম্ভিকতা আরও তীব্র মাত্রা ধারণ করেছে।

তিনি বলেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের সমাবেশে আসার পথে বিভিন্ন স্থানে নেতাকর্মীদের বাধা দেওয়া হয়েছে এবং ঈর্ষান্বিত হয়ে অসংখ্য নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি অবিলম্বে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নেতাকর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।

মঙ্গলবার গণমাধ্যমে পাঠানো দলের সহ-দপ্তর সম্পাদক বেলাল আহমেদ স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল এ দাবি জানান। তিনি বলেন, বিএনপির যে কোনো শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে বাধা ও নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার করে জেলে নিয়ে ত্রাস সৃষ্টি করছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। আবারও অবৈধ পন্থায় রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করতে সর্বশক্তি নিয়োগ করেছে এই সরকার। এ ধরনের অপকর্ম করে জনস্রোতকে ঠেকানো যাবে না। জনগণের মিলিত শক্তি বর্তমান শাসকগোষ্ঠীর সব চক্রান্ত, অপকৌশল ও ভয়াবহ দুঃশাসনকে রুখে দেবে।

গ্রেফতারকৃত নেতাকর্মীর মধ্যে রয়েছেন- ঢাকা মহানগরের সূত্রাপুর থানা বিএনপির হাজী লিয়াকত আলী, উত্তরা-পশ্চিম থানা বিএনপির আবদুস সালাম, রূপনগর থানা বিএনপির আবদুস সাত্তার, রিপন, জালাল হাওলাদার, মানিক খান, ফারুক আহমেদ; মোহাম্মদপুর থানা বিএনপির মো. মাসুদ সর্দার, মো. মিলন খন্দকার, মো. মিলন ঢালী, মো. বিজয় খান, মো. ইব্রাহিম, মো. রাশেদ; গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলা ছাত্রদল সভাপতি হুমায়ুন কবির, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন পালোয়ানসহ ৫ জন; মুন্সীগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. রিফাতসহ ৪ জন, ঘাট শ্রমিক দল নেতা মো. আমির হোসেন প্রমুখ। মিথ্যা মামলায় যাদের আসামি করা হয়েছে তারা হলেন- ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, সহসভাপতি হামিদুর রহমান হামিদ, যুগ্ম সম্পাদক আলী রেজাউর রহমান রিপন, কাউন্সিলর মকবুল ইসলাম খান টিপু, যুবদল ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সিনিয়র সহসভাপতি শরীফ হোসেন, ওয়ারী থানা যুবদল সভাপতি ইব্রাহিম মোল্লা, কাপাসিয়া উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সেলিমসহ ৬০ জন। তবে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সহসভাপতি আলহাজ সামসুল হককে গ্রেফতার করতে না পেরে তার বাসায় পুলিশ ভাংচুর করেছে বলে অভিযোগ করেন বিএনপি মহাসচিব।

আরও পড়ুন

ভারতের সেনাপ্রধানের বক্তব্য এড়িয়ে যাওয়া যায় না

ভারতের সেনাপ্রধানের বক্তব্য এড়িয়ে যাওয়া যায় না

আসামে বাংলাদেশের মুসলিমদের পাঠিয়ে জনসংখ্যার বিন্যাসে পরিবর্তন আনা হচ্ছে বলে ...

বিস্ম্ফোরক মামলার বিচার এখনও বাকি

বিস্ম্ফোরক মামলার বিচার এখনও বাকি

পিলখানা ট্র্যাজেডির ঘটনায় বিস্ম্ফোরক আইনের মামলার বিচার ৯ বছরেও শেষ ...

রাখাইনে আছে মাত্র ৭৯ হাজার রোহিঙ্গা

রাখাইনে আছে মাত্র ৭৯ হাজার রোহিঙ্গা

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে গত বছরের আগস্টে অভিযান শুরুর পর থেকেই ...

এই তো সময় পাঠাগার গড়ার!

এই তো সময় পাঠাগার গড়ার!

খুলনার পাইকগাছার অনির্বাণ পাঠাগার। প্রতিষ্ঠার পর পেরিয়ে গেছে ২৫ বছরেরও ...

এখনও আসছে রোহিঙ্গারা প্রত্যাবাসন অনিশ্চিত

এখনও আসছে রোহিঙ্গারা প্রত্যাবাসন অনিশ্চিত

সংকট শুরুর ছয় মাস পর রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার আলোচনা যখন ...

আওয়ামী লীগে অস্থিরতা বিএনপিতে নীরব লড়াই

আওয়ামী লীগে অস্থিরতা বিএনপিতে নীরব লড়াই

লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর) আসনে বর্তমান এমপি মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টির। আগামী ...

পুজদেমনকে খুঁজতে গার্দিওলার বিমান তল্লাশি

পুজদেমনকে খুঁজতে গার্দিওলার বিমান তল্লাশি

স্পেন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে কাতালুনিয়ার স্বাধীনতার পক্ষে পেপ গার্দিওলার সমর্থন ...

চাঁদাবাজির মামলায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুই নেতা গ্রেফতার

চাঁদাবাজির মামলায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুই নেতা গ্রেফতার

কোটি টাকার চাঁদাবাজির মামলায় নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুই নেতাকে গ্রেফতার ...